কমলাপুর-বিমানবন্দর স্টেশনে বাড়ছে ঘরমুখোদের ভিড়


প্রকাশের সময় :২৭ জুলাই, ২০১৯ ৭:৪০ : অপরাহ্ণ

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর বিমানবন্দর ও কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ঈদ যাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি এখনো শুরু হয়নি। আগামী সোমবার সকাল থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ওই দিন সকাল থেকে ৭ আগস্টের টিকিট বিক্রি করা হবে।

 

 

শনিবার রাজধানীর বিমানবন্দর ও কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ঘুরে দেখা গেছে, ঝিরিঝিরি বৃষ্টি উপেক্ষা করে ঈদ যাত্রার অগ্রিম টিকিটের খোঁজ-খবর নিতে ঘরমুখো মানুষ স্টেশনগুলোতে ভিড় জমাচ্ছেন। যারা পরিবার-পরিজনকে একটু আগেই বাড়িতে পাঠাতে চান তারা আজ ৫ আগস্টের টিকিট সংগ্রহ করছেন। আগামীকাল ৬ আগস্টের টিকিট পাওয়া যাবে।

 

 

রাজধানীর কমলাপুর স্টেশনের টিকিট নিতে আসা রবিউল ইসলাম নামের এক বেসরকারি কর্মকর্তা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, পরিবার-পরিজনকে আগে বাড়িতে পাঠানোর জন্য আজ এসে ৫ তারিখের টিকিট নিয়ে গেলাম। সঙ্গে সঙ্গে অগ্রিম টিকিটের ব্যাপারেও খোঁজখবর নিয়ে গেলাম।

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের দায়িত্বরত এক কর্মকর্তা ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, এখনো ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়নি। যাত্রীরা স্টেশনে আসছেন ঈদ যাত্রার অগ্রিম টিকিটের ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছেন।

 

 

ঈদ যাত্রায় কোন দিনের টিকেটের চাপ বেশি থাকতে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার ধারণা ৮ ও ৯ আগস্ট বৃহস্পতি ও শুক্রবার হওয়ায় এই দুদিনে টিকিটের চাহিদা অনেক বেশি হবে।

তিনি আরো বলেন, বৃহস্পতিবার অফিস শেষে সবাই বাড়ির উদ্দেশে রাজধানী থেকে রওনা হতে চাইবেন। যারা বৃহস্পতিবারের টিকিট পাবেন না তারা শুক্রবার ছুটির দিনের টিকিটের জন্য ভিড় করবেন। এছাড়াও ওই সময় সরকারি অফিস এবং গার্মেন্টস ছুটি হবে বলে ওই দুই দিনের টিকিটের চাপ বেশি থাকবে।

 

 

ঈদ যাত্রার অগ্রিম টিকিটের বিষয়ে বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মরণ চন্দ্র দাস ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, ঈদুল আজহার অগ্রিম টিকিট এখনো বিক্রি শুরু হয়নি। আগামী সোমবার সকাল থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ওইদিন ৭ আগস্টের টিকিট বিক্রি হবে।

 

 

তিনি বলেন, আমাদের পযাপ্ত টিকিট রয়েছে। আশা করি ঈদুল ফিতরের মত এবারো আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে সেবা দিতে পারবো।

 

 

এর আগে গত মঙ্গলবার রেল ভবনে রেলওয়ের প্রস্তুতি বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ২৯ জুলাই দেয়া হবে ৭ আগস্টের টিকিট, ৩০ জুলাই ৮ আগস্টের, ৩১ জুলাই ৯ আগস্টের, ১ আগস্ট ১০ আগস্টের এবং ২ আগস্ট ১১ আগস্টের অগ্রিম টিকিট দেয়া হবে।

এবার ঢাকার পাঁচটি স্থান থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি হবে।

এগুলো কমলাপুর স্টেশন, বিমানবন্দর স্টেশন, বনানী স্টেশন, তেজগাঁও স্টেশন এবং ফুলবাড়িয়া স্টেশন। প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত টিকিট বিক্রি করা হবে। আর মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট বিক্রি শুরু হবে সকাল ছয়টা থেকে।

 

 

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ৫ আগস্টে দেয়া হবে ১৪ আগস্টের ফিরতি টিকিট, ৬ আগস্ট ১৫ আগস্টের, ৭ আগস্ট ১৬ আগস্টের, ৮ আগস্ট ১৭ আগস্টের আর ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের টিকিট দেয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, একজন সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কিনতে পারবেন। জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট নিতে হবে। তিনি বলেন, ১১ ও ১৪ আগস্ট ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী এক্সপ্রেস চলাচল করবে না।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ



আর্কাইভ
জুলাই ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    আগষ্ট »
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১